‘শান্ত-মারিয়াম ইউনিভার্সিটি কম্পিউটার সাইন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং এবং ইনফরমেশন টেকনোলজির প্রদর্শনী সম্পন্ন

25 May 2017

Location: Uttara,Dhaka

শান্ত-মারিয়াম ইউনিভার্সিটি অব ক্রিয়েটিভ টেকনোলজি কম্পিউটার সাইন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্ট ৯ম ব্যাচ ও কম্পিউটার সাইন্স অ্যান্ড ইনফরমেশন টেকনোলজি ডিপার্টমেন্টের ৬ষ্ঠ ব্যাচের ছাত্রছাত্রীদের ‘মাইক্রোকন্ট্রোলার ভিত্তিক প্রজেক্ট প্রদর্শনী’ গত ২৫ মে বুধবার বিশ^বিদ্যালয়ের ৫ নং বিল্ডিং-এ অনুষ্ঠিত হয়। ছাত্রছাত্রীরা তাদের প্রজেক্ট ডিপার্টমেন্টের ল্যাবরেটরি কক্ষে অভ্যন্তরীণ এ প্রজেক্ট প্রদর্শন করেন। এতে চারটি প্রজেক্টে মোট ১৬ ছাত্রছাত্রী অংশ নেন। গ্রুপ-এ ইস্ট্রিট লাইট অ্যান্ড অটোমেটিক রেলওয়ে গেট কন্ট্রোল নিয়ে কাজ করেন মো. ইমরান হোসেন রিয়াদ, মেহজাবিন রাদিয়া, এস. এম. শোয়েব ও তাহমিনা আক্তার জ্যোতি। এরা স্বয়ংক্রিয় ইস্ট্রিট লাইট কন্ট্রোলের মাধ্যমে বিদ্যুতের অপচয় রোধ এবং স্বয়ংক্রিয় রেইলগেট কন্ট্রোল করে দুর্ঘটনা রোধ করার সম্ভাবনা নিয়ে এ প্রজেক্ট উপস্থাপিত হয়। গ্রুপ-বি প্রজেক্টের নাম ‘স্মার্টফোন কন্ট্রোল রোবট কার’। এটি স্মার্টফোন দ্বারা কন্ট্রোল করা হবে। যেকোন স্থানে কার প্রেরণ করাও সম্ভব। এ প্রজেক্টের সদস্যরা হলেন ফয়েজ আহমেদ, রুকাইয়াজ্জামান রুপা, তামান্না ইয়াসমিন তমা ও অংকুর খান। গ্রুপ-সি প্রজেক্ট হলো ‘হোম সিকিউরিটি অটোমেশন’। এ প্রজেক্টের কাজ হলো রুমের মধ্যে মানুষ প্রবেশ করলেই তাকে কেন্দ্র করে ফ্যান ও লাইট জ্বলবে আর বের হয়ে গেলে ফ্যান-লাইট অটোমেটিক বন্ধ হয়ে যাবে। এতে অংশ নেন মো. শরিফ শাহরিয়ার, সামিয়াতুজ্জান্নাত তন¦ী, জাবের-আল- সালেহ ও ইমরুল কায়েস। গ্রুপ-ডি হলো ‘ডিসপ্লে অব প্রোপেলার’। মাত্র ৫টি খঊউ লাইট ব্যবহার করে, যেকোন ধরনের লেখাকে এ প্রজেক্টের মাধ্যমে ডিসপ্লে করা হয়। গ্রুপ সদস্যরা হলেন ওমর সিদ্দিক পারভেজ, ফয়েজ-উন- নিসা স্বাতী, শাহ রোকনুজ্জামান ও ডালিয়া ইসলাম তিন্নি। এ প্রদর্শনীতে অতিথি ছিলেন শান্ত-মারিয়াম ইউনিভার্সিটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদের ডীন, প্রফেসর ড. মো. আব্দুল হালিম শেখ, প্রক্টর ড. মো. গোলাম মোস্তফা ও জয়েন্ট প্রক্টর মো. জহুরুল হক। এছাড়াও বিভাগীয় শিক্ষক এবং ছাত্রছাত্রীরা উপস্থিত ছিলেন। প্রফেসর ড. মো. আব্দুল হালিম শেখ এ প্রজেক্ট প্রদর্শন করার জন্য ছাত্রছাত্রীদের আন্তরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। তিনি বলেন- ‘ভবিষ্যতে এ ছাত্রছাত্রীরাই আরও ভালো কিছু প্রজেক্ট উপস্থাপন করে আমাদের মুখ উজ্জ্বল করবে।’ এ জন্য তিহনি বিভাগীয় প্রধান, প্রফেসর ড. মো. আবু সাঈদ, সহকারী অধ্যাপক এ এইচ সোহেল আহমেদসহ অন্যান্যদের সাধুবাদ জানান। প্রক্টর ড. মো. গোলাম মোস্তফা বলেন- ‘প্রজেক্টগুলি অনেক ভালো হয়েছে। এরাই আগামীতে আমাদের এবং শান্ত-মারিয়ম বিশ^বিদ্যালয়কে রিপ্রেজেন্ট করবে।’ জয়েন্ট প্রক্টর মো. জহুরুল হক প্রজেক্টের জন্য ছাত্রছাত্রীদের ধন্যবাদ জানান এবং শিক্ষার্থীদের প্রয়োজনীয় সহযোগিতার আশ^াস দেন। বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ড. মো. আবু সাঈদও ছাত্রছাত্রীদের প্রশংসা ও ধন্যবাদ জানান। উপস্থাপনায় ছিলেন বিভাগীয় শিক্ষক শাম্মি আক্তার ডলি।